Saturday, May 31, 2008

ক্লোভারফিল্ড

গতকাল ক্লোভারফিল্ড নামের একটি সিনেমা দেখছিলাম । সিনেমাটির বিষয়বস্তু নতুন কিছু নয় একটি অতিকায় প্রাণীর নিউইয়র্ক আক্রমন । এর আগে বহু সিনেমায় যেমন ইন্ডিপেন্ডেন্স ডে, গডজিলা, কিংকং এ আমরা নিউইয়র্ক শহরে অতিকায় প্রানীর দাপাদাপি দেখেছি । 

কিন্তু সিনেমাটি যেভাবে তোলা হয়েছে তাতে পুরো ব্যাপারটিই একটা আলাদা মাত্রা পেয়ে গেছে । সিনেমাটি পুরোটা তোলা হয়েছে হোম ভিডিও যেভাবে তোলা হয় সেভাবে । পুরো ক্যামেরা টেকনিকটার স্টাইল হল যেন কোন অপেশাদার ক্যামেরা ম্যান পুরোটা তুলেছে । অবশ্য গল্পেও সেটাই ছিল । গল্পের শুরুতে বলা হয় যে ধ্বংসপ্রাপ্ত নিউইয়র্কের সেন্ট্রাল পার্ক থেকে মিলিটারিরা ক্যামেরাটি উদ্ধার করেছে । সেই ক্যামেরার এডিট না হওয়া ফুটেজটাই হল পুরো সিনেমা । পুরো সিনেমা জুড়ে ক্যামেরা কোন সময়েই স্থির নেই সব সময়েই কাঁপছে অনেক সময়েই যে কথা বলছে তার মুখ দেখা যাচ্ছে না বা তার মুখ কেটে যাচ্ছে । আবার অনেক সময় ক্যামেরা হাত থেকে পড়ে যাচ্ছে বা বেঁকে যাচ্ছে ।   

অর্থাৎ বাড়িতে হ্যান্ডিক্যাম বা মোবাইলে ভিডিও তুললে যা হয় সেই ভাবেই পুরো সিনেমাটি দেখানো হয়েছে । চিত্রগ্রহনের এই পদ্ধতি এর আগে মনসুন ওয়েডিং নামের একটি সিনেমায় দেখেছিলাম কিন্তু এই ধরনের প্যানিক এবং সাই-ফাই সিনেমায় পুরো ব্যাপারটাই আলাদা মাত্রা পেয়েছে । ফার্স্ট পার্সনে চিত্রগ্রহন করার ফলে সিনেমাটি অনেক আকর্ষনীয় হয়েছে । এখানে দর্শক শুধু দর্শক নয় সেও যেন সিনেমাটির একটি চরিত্র । রোমাঞ্চ যেন আরও বেশি করে অনুভব করা গেছে । 

অনেকের কাছেই এই স্টাইলটা বেশ ভাল লেগেছে এবং নতুন জেনারেশনের কাছে এটা গ্রহন যোগ্য কারন তারা এইভাবেই ভিডিও তুলতে অভ্যস্ত । যদিও হলে দেখতে গিয়ে কেউ কেউ মাথা ঘোরা এবং ধরার অভিযোগ জানিয়েছেন । 

1 comment:

sadiphasan said...

আমাদের দেশ হল নদী প্রধান। সেই কারনে আমাদের প্রিয় খাবার মাছ। মাছ ছাড়া আমাদের চলেই না। কিন্তু আজ কাল তাজা মাছ পাওয়া যায় না। সবাই অনেক সময় তাজা বা টাটকা এবং ফরমালিন মুক্ত মাছ খোঁজ করেন। ফরমালিন মুক্ত মাছ, তাজা সামুদ্রিক মাছ, গলদা চিংড়ি, চিংড়ি, তাজা জল-মাছ, কাঁকড়া, ইত্যাদি দরণের মাছ খোঁজ পেতে পারেন। তাহলে ভিজিট করুন freshfishbd.