Tuesday, November 07, 2006

জ্যোতিষ -- এক সামাজিক সমস্যা

 
জ্যোতিষীরা যে মানুষের উপকার করার থেকে অপকার অনেক বেশী করে সে বিষয়ে আমার কোন সন্দেহ নেই । মূলত মানুষকে বোকা বানিয়ে এবং তাদের মানসিকভাবে দূর্বল করে দিয়ে তাদের কাছ থেকে কিছু টাকা কামিয়ে নেওয়াই এদের একমাত্র লক্ষ্য ।
জ্যোতিষশাস্ত্রের ভিতরে আদৌ কিছু সারমর্ম আছে কিনা সেটা আমার জানা নেই, কিন্তু এটা সহজেই বুঝতে পারি যে এর উপর ভিত্তি করে জীবনের কোন সিদ্ধান্ত নেবার মতো বোকামো আর হয় না ।
অনেকক্ষেত্রে জ্যোতিষীরা কিছু সম্ভাবনার কথা বলে যা হয়ত কিছুটা মিলে যায় । কিন্তু সেই মিলে যাওয়াটা হয়ত সংখ্যাতত্ত্বের বিচারে এমনিই হত । তারপর জ্যোতিষীরা যেভাবে বিচার করে তা যেকোনও সুস্থ মস্তিষ্কের মানুষের পক্ষে মেনে নেওয়া কষ্টকর । যেমন তাদের গ্রহের লিস্টে রাহু আর কেতু আছে যার দেখা এখনও পাওয়া যায় নি । এছাড়া তারা সূর্য এবং চাঁদকেও গ্রহ হিসাবে ধরে । তারপর জ্যোতিষীদের মহাবিশ্ব পৃথিবীকেন্দ্রীক যা একেবারে ভুল ।
জ্যোতিষীদের লোকঠকানো ব্যবসা বন্ধ করার জন্য ভারতে আইন অবধি আছে । কিন্তু তাকে কলা দেখিয়ে জ্যোতিষীরা দিব্যি করে খাচ্ছে ।
মানুষ যত সফল হয় তত তার নিজের প্রতি আস্থা কমে । প্রতি মূহুর্তেই সে বিফল হবার ভয় পায় । এইজন্য দেখা যায় ফিল্মস্টার, খেলোয়াড়, রাজনীতিবিদ, সাহিত্যিক সবাই জ্যোতিষীর দ্বারস্থ হচ্ছেন ।

পশ্চিমবঙ্গের বেশির ভাগ পত্র পত্রিকাতেই রাশিফল ছাপা হয় । অতি আধুনিক ইংরাজী পত্রিকাগুলিও বাদ যায় না । এছাড়া টিভি চ্যানেল গুলিতে রোজ সকালে রাশিফলের অনুষ্ঠান প্রচারিত হয় । এছাড়া বিভিন্ন চ্যানেলের স্লট ভাড়া করে নিয়ে জ্যোতিষীদের লোকঠকানো অনুষ্ঠান তো আছেই ।
এমনকী ইন্টারনেটের বিভিন্ন ভারতীয় পোর্টালে রাশিফলের জন্য আলাদা পাতা পর্যন্ত থাকে । মোবাইলে এসএমএস আসে পণ্ডিতজীর কাছ থেকে মিনিটে ছয় টাকা খরচ করে পরামর্শ নেবার জন্য ।
পুরো ব্যাপারটাই যে করা হয় স্রেফ ব্যবসা বাড়ানোর জন্য সেটা বোঝা শক্ত নয় ।


এই কুসংস্কারাচ্ছন্ন দেশে আবার বিদেশ থেকে কুসংস্কার আমদানি করা হয় যেমন চৈনিক বুজরুকি ফেং শুই । এই বুজরুকি দেখিয়ে আর বেচে কলকাতায় কিছু লোক প্রচুর টাকা করে ফেলেছে ।

মুম্বাই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে জ্যোতিষীদের রমরমা বাজার তাদের মতামত না নিয়ে কোনো কাজই করা হয় না । সেখানে লাগে রহো মুন্নাভাই সিনেমাতে জ্যোতিষীদের বিরুদ্ধে কিছু কথা বলা হয়েছে । তাই দেখে মনে ভরসা জাগে যে সুস্থভাবে চিন্তা করার লোক এখনও মনে হয় আছে ।

5 comments:

Debashish said...
This comment has been removed by the author.
Debashish said...

Can you please correct the URL for Bangla Blog directory in your BlogRoll to http://www.banglablogs.org? You may also get the links from http://www.banglablogs.org/index.php/owner.html?ID=4.

সোহাগ ভূইঁয়া said...

যা বলেছেন!

Ritwik Patra said...

জ্যোতিষে বিস্বাস এমন লোকেরা আমাদের চারপাশে। কি আর করা যাবে? আমার ত মনে হয় এই সব লোকেরা আমাদের জীবন খানিকটা রঙ্গীন করতে সাহায্য করে।

liton hasan said...

ধন্যবাদ। জ্যোতিষীরা কেমন তা জানি না। তবে এই পৃথিবিতে এমন কিছু লোক আছে বা ছিলও, যারা জ্যোতিষশাস্ত্রের মাধ্যমে উপকার করত। আর আজ কাল কিছু লোক জ্যোতিষশাস্ত্র না যেনেও জ্যোতিষী হয়ে ব্যবসা করছে।