Thursday, September 14, 2006

কমিউনিস্ট জোকস্ ১৩

কথায় বলে, এইডস হল বিংশ শতাব্দীর ব্যাধি । কিন্তু সোভিয়েত ইউনিয়ন এবং জাপানের কাছে তা কোনও হুমকিই নয় । কারণ জাপান বাস করে একবিংশ শতাব্দীতে । আর সোভিয়েত ইউনিয়ন ? ঊনবিংশ শতাব্দীতে ।


কমিউনিজমের মূল কথা হল, এক তাত্ত্বিক বোঝাচ্ছেন অন্য জনকে,

প্রতিবেশীর সঙ্গে নিজেরটা ভাগ করে নেওয়া ।

না মোটেই না । আরেকজন প্রতিবাদ করেন, কমিউনিজমের মূল কথা হল, প্রতিবেশীরটা নিজের সঙ্গে ভাগ করে নেওয়া ।


রুশ ও পোলিশ একসঙ্গে ঘুরতে ঘুরতে কুড়িয়ে পেল একশ রুবল ।

প্রস্তাব দিল রুশ :

এসো, টাকাটা আমরা ভাইয়ে ভাইয়ে ভাগ করে নিই ।

উহুঁ একেবারে না । ভাই-ভাইয়ের হিসাব বাদ দাও । তার চেয়ে এসো, টাকাটা অর্ধেক অর্ধেক করে নিই ।


জিম্বাবোয়ের প্রেসিডেন্টের একশ জন প্রেমিকা । তাদের মধ্যে একজন এইডস্ এ আক্রান্ত। কিন্তু ঠিক কে, প্রেসিডেন্ট তা জানেন না ।

আমেরিকার প্রেসিডেন্টের একশ জন দেহরক্ষীর মধ্যে একজন কেজিবির এজেন্ট । কিন্তু ঠিক কে, তা তিনি জানেন না ।

সোভিয়েত প্রেসিডেন্টের একশ জন অর্থনৈতিক উপদেষ্টার মধ্যে একজনের কাছে সঠিক অর্থনৈতিক কর্মসূচীটি আছে । কিন্তু ঠিক কার কাছে, তা তিনি জানেন না ।


এক পোলিশ পুরনো এক প্রদীপ ঘষেমেজে পরিষ্কার করছিল । হঠাৎ আলাদিনের জিনের আবির্ভাব । জিন বলল, তোমার তিনটে ইচ্ছে আমি পূরন করে দিতে পারি ।

বেশ আমার প্রথম ইচ্ছে, চীন যেন পোল্যান্ড আক্রমন করে । আমার দ্বিতীয় ইচ্ছে চীন যেন পোল্যান্ড আক্রমন করে । আর আমার তৃতীয় ইচ্ছে চীন যেন পোল্যান্ড আক্রমন করে ।

জিন অবাক হয়ে জানতে চাইল এই অদ্ভুত ইচ্ছের কারণ ।

খুব সোজা । তাহলে চীনের সৈন্যবাহিনীকে ছবার রাশিয়ার উপর দিয়ে যেতে হবে ।


এক ভুক্তভোগী কমিউনিজমের ব্যর্থতার কারণ ব্যাখ্যা করছেন :

যদি তিরিশ বছর বয়সের আগে তুমি কমিউনিস্ট না হও, তাহলে বুঝতে হবে, তোমার হৃদয় বলে কোন পদার্থ নেই । যদি তুমি তিরিশের পরেও কমিউনিস্ট থেকে যাও তাহলে বুঝতে হবে, তোমার মস্তিষ্ক বলে কোনও পদার্থ নেই !

1 comment:

aparna said...

নতুন টেম্প্লেটটা দারুন!