Friday, June 23, 2006

কমিউনিস্ট জোকস্ ১০

সোভিয়েত বেতার কেন্দ্রের ঘোষণা :
-- মস্কোয় এখন সময় বেলা তিনটে, স্‌ভের্দলোভাস্কে বিকেল চারটে, তোমস্কে পাঁচটা, ইরকুতস্কে সন্ধে ছ’টা, ভ্লাদিভস্তকে রাত এগারোটা....
বেতার বিবরণী শুনতে শুনতে মন্তব্য করলেন এক বৃদ্ধ :
-- যে দেশে এত অব্যবস্থা, এত অরাজকতা, এত বিশৃঙ্খলা,- সে দেশের উন্নতি হবে কি করে ?


ক্রুশ্চেভ আমলের ঘটনা :
সরকারের ধামাধরা লেখক ও সাংবাদিক করনেইচুক সিঁড়ি থেকে পড়ে গিয়ে আহত হয়েছেন । সঙ্গে সঙ্গে এলেন সরকারি ডাক্তার । ডাক্তারকে বলা হল, মনে হচ্ছে কমরেড করনেইচুকের মেরুদণ্ড ভেঙে গেছে । ঘোর প্রতিবাদ করে ডাক্তার বললেন :
-- অসম্ভব ! আমি কমরেড করনেইচুককে বহু বছর ধরে চিনি । তাঁর মেরুদণ্ডই নেই ।

--হ্যালো এটা কি কেজিবি ?
-- না, কেজিবি ধ্বংস হয়ে গেছে ।
আবার ফোন :
-- হ্যালো, এটা কি কেজিবি ?
-- না, কেজিবি ধ্বংস হয়ে গেছে ।
কিছুক্ষন পর আবার একই ফোন
-- হ্যালো, এটা কি কেজিবির সদর দপ্তর ?
-- না । আপনি কে মশাই ? ক’বার আপনাকে বলতে হবে যে কেজিবি ধ্বংস হয়ে গেছে ?
-- আহা, এত চটছেন কেন ? ভাল খবরটা বার বার শুনতে কার না ভাল লাগে, বলুন ?

কেজিবি অফিসে ফোন :
-- হ্যালো, আমাদের তোতাপাখিটা হারিয়ে গেছে ।
-- আঃ ! এটা কেজিবি অফিস, এ নিয়ে আমাদের কিছু করার নেই । আপনি বরং স্থানীয় থানায় যোগাযোগ করুন ।
-- তা আমরা জানি । কিন্তু আপনাদের জানিয়ে রাখতে চাই যে, পাখিটি যা বলে, সেটা ওর একান্ত ব্যক্তিগত (বা পক্ষীগত) নিজস্ব মতামত । আমাদের মতামতের সঙ্গে তার কোন মিল নেই ।

প্রশ্ন : পাউণ্ড, ডলার ও রুবলের পারস্পরিক বিনিময় হার কত ?
উত্তর : এই পাউণ্ড ওজনের রুবলের দাম এক ডলার ।

বঁড়শিতে মাছ ধরছে একজন । ফাৎনা ডুবছে । টেনে তুলে সে দেখল, সুন্দর একটা সোনালি মাছ । লোকটিকে কাতর অনুনয় বিনয় করে মাছটি বলল :
-- আমাকে ছেড়ে দাও, তোমার যে কোন ইচ্ছে আমি পূরণ করে দেব ।
-- যে কোনও ইচ্ছে ? ঠিক আছে, তাহলে সব কমিউনিস্টকে কফিনে ভরে সমুদ্রে ভাসিয়ে দাও ।
-- সব কমিউনিস্টকে ? তাদের মধ্যে তো অনেক ভালো কমিউনিস্ট আছে ।
-- বেশ । তাহলে ভাল কমিউনিস্টদের ভাল কফিনে ভরো, আর খারাপ কমিউনিস্টদের ভরো খারাপ কফিনে ।

মাছের দোকানে গিয়ে ক্রেতা বলছেন :
-- ওহে, আমাকে ওই রাষ্ট্রনায়ক মাছটা দাও তো হে ।
-- রাষ্ট্রনায়ক মাছ ? সেটা আবার কি ?
-- ওই যে, মোটাসোটা, চর্বিওয়ালা, মাথাবিহীন মাছটা ।

ব্রেঝনেভ আমল । সোভিয়েত অর্থনীতিতে তখন ধস শুরু হয়ে গেছে । সেই আমলের শেষের দিকে সোশ্যালিস্ট, ক্যাপিটালিস্ট এবং কমিউনিস্ট এই তিন জনের একটা নির্দিষ্ট স্থানে দেখা করার কথা । নির্দিষ্ট সময়ের অনেক পরে এল সোশ্যালিস্ট । বলল :
-- মাছের জন্য লাইনে দাঁড়িয়েছিলাম বলে আসতে দেরি হয়ে গেল । খুব দুঃখিত ।
-- লাইন ? সেটা আবার কি ? -- ক্যাপিটালিস্টের প্রশ্ন ।
-- মাছ ? সেটা আবার কি ? -- প্রশ্নকর্তা কমিউনিস্ট ।

গর্বাচভের জমানা । রুবলের দাম তখন কানাকড়িও নয় । গোটা সোভিয়েত ইউনিয়ন জুড়ে নিত্যপণ্যের অবিশ্বাস্য দুষ্প্রাপ্যতা । সেই সময় মাছের দোকানে শোনা গেল নিম্নোক্ত কথোপকথন :
ক্রেতা : কড মাছ আছে ?
বিক্রেতা : নেই ।
ক্রেতা : হেরিং আছে ?
বিক্রেতা : নেই ।
ক্রেতা : স্যামন আছে ?
বিক্রেতা : নেই ।
ক্রেতা : ম্যাকারেল আছে ?
বিক্রেতা : শুনুন মশাই, এটা মাছের দোকান । ইনফর্মেশন ব্যুরো নয় ।

3 comments:

Anonymous said...

ki kolo sarir na mon , ki kharap?

Anonymous said...

ব্লগ করার শখ তাহলে মিটে গেল!

Anonymous said...

Here are some links that I believe will be interested